Coin আর Token এর মধ্যে পার্থক্য

আমাদের দেশে বর্তমানে অনেকেই ক্রিপ্টোকারেন্সি ইন্ডাষ্ট্রিতে জড়িত আছে বা বিটকয়েন সম্পর্কে জানে। কিন্তু অত্যন্ত দুঃখজনক হলেও সত্য যে অনেকেই Coin এবং Token এর মধ্যে পার্থক্য সঠিকভাবে বুঝতে পারে না। এখানে আমরা Coin আর Token এর মধ্যে পার্থক্য বুঝার চেষ্টা করব।

COIN

Coin হল যার নিজস্ব স্বাধীন ব্লকচেইন আছে যেমন Bitcoin, Litecoin, Dogecoin ইত্যাদি। এগুলো হল কয়েন। এগুলো অন্য কোন কারেন্সি বা কয়েনের উপর নির্ভরশীল নয়। এই ধরনের কয়েন একেবারে শুরু থেকে ধরে ধরে হাতে তৈরী করা হয়। এর কার্যপ্রনালী নির্দিষ্ট নিয়ম মেনে চলে। বর্তমানে অনেক কয়েন তাদের মূল চেইনকে বেস করে স্মার্ট কন্ট্রাক্ট ইস্যু করার সুবিধা রাখে যা ব্যবহার করে টোকেন তৈরী করা হয়।

Smart Contract

Smart Contract হল এমন সুবিধা যা কোন ব্লকচেইনকে কারেন্সি ট্রান্সফার ছাড়া অন্য ধরনের কাজ করার সুবিধা দেয়। অন্যভাবে বলতে গেলে, স্মার্ট কন্ট্রাক্ট হল এমন সুবিধা যা ব্যবহার করে কোন কয়েনের ব্লকচেইনকে ইউজার নিজস্ব কাজে ব্যবহার করতে পারে। এর বিস্তারিত জানতে এই ভিডিওটি দেখতে পারেন।

TOKEN

Token হল Smart Contract সাপোর্ট করে এমন কয়েনের [ যেমন, ETH, TRX, WAVES ইত্যাদি ] মূল চেইনকে ব্যবহার করে আলাদা নির্দিষ্ট পরিমানে কয়েন তৈরী করা যা মূল কয়েনের ব্লকচেইনকে ব্যবহার করে ট্রান্সেকশন সম্পন্ন করে থাকে। এই টোকেন সব সময় মূল চেইনের উপর ভিত্তি করে কাজ করে এবং এর আদান প্রদান করতে মূল কয়েনের ওয়ালেট ব্যবহার করা হয়। যেহেতু, টোকেন সব সময় মূল চেইনের উপর ভিত্তি করে কাজ করে তাই মূল চেইনে কোন সমস্যা হলে তা টোকেনের উপর প্রভাব ফেলে।

কিছু অতীতের অবস্থার কথা এখানে তুলে ধরা যাক।

২০১৭ সালে Token এর ব্যাপক জনপ্রিয়তা সৃষ্টি হয় ETH দিয়ে সহজে ICO হিসাবে Smart Contract জেনারেট করার সুবিধার জন্য। তখন মূলত Token জেনারেট করা হত Pump and Dump করার উদ্দেশ্যে। তাই ICO এর নামে টোকেন ছাড়া হত। প্রচুর ট্রেডার স্ক্যাম এর শিকার হয় সেই সময়। পরবর্তীতে ২০১৮ সালের মার্কেট ধসের পর থেকে টোকেন এর জনপ্রিয়তা কমতে থাকে। এর পর TRX এর প্রচলন এবং জনপ্রিয়তা বাড়ার পর এবং DEX এর প্রচলন বাড়ার পর কিছু কিছু করে আবার টোকেন এর প্রচলন শুরু হয় কিন্তু হাতে গোনা কয়েকটি টোকেন ছাড়া বেশিরভাগ টোকেন ই ব্যর্থ হয় এবং বর্তমানে তারা কোন কাজেই ব্যবহার হয় না।

বর্তমানে DEX এ মূলত Token বাই সেল হয় এবং DEX গুলো সাধারনত ETH, TRX বা WAVES এর চেইনের উপর বেস করেই তৈরী করা হয়।

এবার একনজরে Coin আর Token এর পার্থক্য দেখে নেওয়া যাকঃ

COINTOKEN
কয়েনের নিজস্ব ব্লকচেইন থাকে।টোকেন অন্য কয়েনের ব্লকচেইন ব্যবহার করে
কয়েন সাধারনত কোন প্রিমাইন থাকে না। থাকলেও পরিমানে খুব কম ৫-১০% ।টোকেন ১০০% প্রিমাইন থাকে।
কয়েন সকল ট্রান্সেকশন তার নিজস্ব ব্লকচেইন এর মাধ্যমে করে।টোকেন সকল ট্রান্সেকশন মূল কয়েনের ব্লকচেইন এর মাধ্যমে করে।
প্রতি কয়েনের আলাদা ওয়ালেট থাকে।টোকেন সাধারনত মূল কয়েনের ওয়ালেটকে নিজের ওয়ালেট হিসাবে ব্যবহার করে।
কয়েন একেবারে বেস থেকে ধরে ধরে তৈরি করা হয় তাই এটা তৈরী সময়সাপেক্ষ।টোকেন মূল কয়েনের ওয়ালেট থেকেই তৈরী করা যায় তাই সময় লাগে ৫-১০ মিনিট।
কয়েন এর ব্লকচেইন সচল রাখতে মাইনার বা নোড ব্যবহার করতে হয়।টোকেন এর ব্লকচেইন না থাকায় মূল চেইন সচল থাকলেই ট্রান্সেকশন করা যায়।
কয়েন তৈরী ও সচল রাখতে খরচ অনেক হয় তাই সাধারনত দাম বেশি থাকে।টোকেনের মেইন্টেনেন্স কষ্ট না থাকায় ও সাপ্লাই অধিক হওয়ায় সাধারনত সস্তা হয়।
কয়েন সাধারনত এক্সচেঞ্জ এ ট্রেড হয়।টোকেন মূলত ট্রেড হয় DEX এ তবে এক্সচেঞ্জ এ ও জনপ্রিয় টোকেনগুলো ট্রেড হয়।
কয়েন সাধারনত প্রিমাইন না হলে ট্রেড করার ক্ষেত্রে রিস্ক কম।টোকেন ১০০% প্রিমাইন বলে রিস্ক অত্যন্ত বেশি ট্রেড এর ক্ষেত্রে।
কয়েনে স্ক্যাম টোকেন এর তুলনায় অনেক কম।টোকেন একেবারে সস্তায় এবং চাইলেই তৈরী করা যায় তাই স্ক্যাম অত্যন্ত বেশি।

আমাদের মতামত

যারা দীর্ঘদিন ধরে মার্কেটে আছি এবং মার্কেটের চড়াই উৎরাই দেখে এসেছি তারা কখনোই Token এ ইনভেষ্ট করতে সাজেষ্ট করবে না। কারন Token এ ইনভেষ্ট করা অত্যন্ত রিস্কি। কেন রিস্কি। সবচেয়ে বড় কারন হল এর সম্পূর্ন সাপ্লাই প্রিমাইন করা থাকে ফলে টোকেন এর ডেভেলপার বা ওউনার যে কোন সময় চাইলেই সব টোকেন এক বারে ডাম্প করে মার্কেট নষ্ট করে দিতে পারে। যেহেতু যে টোকেন তৈরী করে সে হিসাব করেই তৈরী করে যে কিভাবে সে মার্কেটে তার টোকেন রানিং করবে তাই মার্কেটে টোকেনের দাম তার হিসাবের তুলনায় বেশি থাকলে তার কাছে থাকা টোকেন ডাম্প করা স্বাভাবিক। এমন হাজার হাজার উদাহরন নেটে সার্চ করলেই পাওয়া যায়।

তাই টোকেন দেখে যতই লাভজনক মনে হোক না কেন টোকেন কখনোই সেফ ইনভেষ্টমেন্ট নয়। তাই তাদের লোভনীয় মার্কেটিং প্রোমশন দেখে কখনোই উচিত হবে না নিজের পকেটের টাকা টোকেনে ইনভেষ্ট করা। ফ্রী তে পাওয়া গেলে তা ব্যবহার করা যেতে পারে তবে কিনে প্রফিটের উদ্দেশ্যে রেখে দেওয়া সমিচীন হবে না।

শেয়ার করে বন্ধুদের জানার সুযোগ করে দিন